বগুড়ায় মাদ্রাসা ছাত্রকে বলৎকার অভিযুক্ত শিক্ষক কারাগারে

স্টাফ রিপোর্টার:বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার একটি কওমী হাফেজিয়া মাদ্রাসার শিশু শিক্ষার্থীকে বলৎকারের অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছে মাদ্রাসা শিক্ষক। গ্রেফতারকৃত মাদ্রাসা শিক্ষকের নাম সোহেল আকন্দ ( ২২ )। তার বাড়ি বগুড়া শহরতলীর দক্ষিণ নারুলী মহল্লায়। ঘটনার বিবরণ দিয়ে বলৎকারের শিকার ১০ বছর বয়সী শিশুটির পিতা শাজাহানপুর থানার হেলেঞ্চা পাড়া নিবাসী মোঃ ইউসুফ আলী জানিয়েছেন, হেলেঞ্চা পাড়ার একটি কওমী হাফিজিয়া মাদ্রাসায় তার ছেলে আবাসিক ছাত্র হিসেবে পড়াশোনা করে। গত ২৩ জুলাই মধ্যরাতে তার ছেলেকে গ্রেফতারকৃত শিক্ষক সোহেল আকন্দ বলৎকার করে মুখ বন্ধ রাখতে ভয়ভীতি দেখায়। ফলে সে চুপ থাকে তবে পরদিন ২৪ জুলাই সে অসুস্থ হয়েছে মর্মে খবর পেয়ে তাকে তিনি বাসায় নিয়ে আসেন জ্বরের ওষুধ খাওয়ান। ২৭ তারিখে ছেলে তার মা রহিমার কাছে ঘটনাটি খুলে বললে তারা হতবাক হয়ে যান। ঘটনাটি তিনি স্থানীয় লোকজন ও মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষকে জানানোর সবার পরামর্শে শাজাহানপুর থানায় গিয়ে এজাহার করেন। পুলিশ সংশ্লিষ্ট শিশুটির জবানবন্দী ও প্রাথমিক তদন্তে ঘটনার সত্যতা পেয়ে অভিযুক্ত শিক্ষকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে।সংশ্লিষ্ট মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা এস আই রাজু কামাল জানান, ঘটনার শিকার শিশুটির মেডিকেল টেস্ট সম্পন্ন করা হয়েছে। টেস্ট রিপোর্ট হাতে পেলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলেও জানান।